ইষ্টভৃতি নিয়ে অনুশ্রুতি ১ম খন্ড(২১-৩০)

অনুশ্রুতির ১ম খন্ডে “ইষ্টভৃতি স্বস্ত্যয়নী” শিরোনামে পৃষ্ঠা ৩১৭ – ৩৩৪ পর্যন্ত মোট ৭৪টি বাণী রয়েছে।
এর মধ্যে ২১ – ৩০ নং বাণী নিচে দেয়া হলো।

জীবন যদি যায়ই রে তোর
ইষ্টভৃতি ছাড়িস না,
ধৰ্ম্ম, অর্থ, কাম, মোক্ষের
ঐ নিশানা ভুলিস্ না । ২১।
ইষ্টভৃতির অপব্যয়ে
সেই প্রবৃত্তির বাড়বে ঝোঁক,
কোন্ আপদে ফেলবে তোকে
রোখাই কঠিন হবে রোখ । ২২।
ভিক্ষা করেও ইষ্টভৃতি 
করলে আর্য্যছেলে,
অযুত তীর্থ পর্য্যটনের
ফল তাহাতে মেলে । ২৩।
সামর্থ্যে ক'রে অপলাপ 
করলে ভিক্ষা হয় রে পাপ,
ভিক্ষা করা ইষ্টভৃতি
হীনসামর্থী অধম নীতি । ২৪।

নিজের যেমন ভাল-মন্দ
সুখ-সুবিধায় মন,
তেমনতরই ইষ্টভাইকেও
করিস্ সুযতন;
ওতে জানিস্ ইষ্টপ্রীতি
বাড়েই অনুক্ষণ—
ইষ্টভ্রাতার অনুরাগে
তোলেই জীবন-মন । ২৫।

ইষ্টভৃতির ভ্রাতৃভোজ্য
অশ্রদ্ধাতে দেয় যে,
ইতোভ্ৰষ্ট-স্ততোনষ্ট
অবিলম্বেই হয় সে । ২৬।
ইষ্টভৃতির ভ্রাতৃভোজ্য
অবজ্ঞা করে নেয় না,
পায়ে লক্ষ্মী সেই তো ঠেলে
নারায়ণে চায় না । ২৭।
ইষ্টভৃতি ইষ্টকেই দিস্
করিস্ না তা'য় বঞ্চনা,
অন্যকে তা' দিলেই জানিস্
আসবে বিপাক-গঞ্জনা । ২৮।
তোল্ ওরে তোল্ মন্থনী রোল
যাজন-সেবায় ইষ্টভৃতি,
ফেনিলস্নিগ্ধ অমর সুধায়
সার্থকি' তোল আর্য্য-ঋতি । ২৯।
কালবোশেখী জলদ কালোর
        ঝিলিক হারটি গলায়
ঝড়-বাহনে চলছে মেঘের
        এলো মেলো নাচদোলায়,
তপের আগুন জ্বাল্ এখনই
        সর্ব্বশিবের মিলন কর্,
জীবনবৃদ্ধি অমোঘ মন্ত্রে
       অযুত বেতাল সামলে ধর্,
ইষ্টস্বার্থী যাজন-সেবায়
        আন্ রে ঝঞ্ঝা আগুন রাগ,
বল্ ওরে বল্ বিষাণ-রাবে
        ইষ্টভৃতি রাখ্ সজাগ । ৩০।