অহঙ্কার যত ঘন, …. উজ্জ্বল।-ব্যাখ্যা

সত্যানুসরণ-এ থাকা শ্রীশ্রীঠাকুরের বাণীটি হলো:

অহঙ্কার যত ঘন, অজ্ঞানতা তত বেশী ; আর অহং যত পাতলা, জ্ঞান তত উজ্জ্বল।

পরমপূজ্যপাদ শ্রীশ্রীবড়দা কর্তৃক ব্যাখ্যা :

ধৃতিদীপা—এখানে আমি কর্ত্তা ভাব।

শ্রীশ্রীবড়দা—তার মানে কি?

ধৃতিদীপা—আমাকে সব সময় বড় মনে করি।

শ্রীশ্রীবড়দা—বড় মনে করা, আর কর্তা ভাব কি এক? কর্তা ভাব, তাতে হবে কি করে? আমি সব কিছু জানলে কি কর্তা ভাব হয়? কর্তা ভাব মানে কি? কর্তা মানে কি?

নবদীপ্তি—পরিবারের ভেতর সব চাইতে বড় যিনি।

শ্রীশ্রীবড়দা—কর্তা ভাব মানে—আমি কর্ত্তা, সবার চেয়ে বড়। আমার কথা সবাইকে শুনতে হবে, আমি কারও কথা শুনবো না। এমন মানুষের ধারণা তারা সবজান্তা। তাদের শেখার কিছু নেই। তাই তারা জানতেও পারে না। শিখতেও পারে না। যে ভাবে, এর কাছে এটা শিখতে হবে, ওর কাছে ওটা শিখতে হবে, ভাল ক’রে জেনে নিতে হবে,—সে জানতেও পারে বেশি, অহংকারও তার পাতলা থাকে। অহংকার যত ঘন হয়, তত মানুষ নিজের বাইরে আর কিছুতেই চোখ দেয় না। তাই জ্ঞানের উজ্জ্বলতা থেকে বঞ্চিত হয়।

[‘যামিনীকান্ত রায়চৌধুরীর দিনলিপি/তাং-২৬/১১/৭৮ ইং]

[প্রসঙ্গঃ সত্যানুসরণ পৃষ্ঠা ২৩৪]