কোন-কিছুতেই যুক্ত …. যোগ।-ব্যাখ্যা

সত্যানুসরণ-এ থাকা শ্রীশ্রীঠাকুরের বাণীটি হলো:

কোন-কিছুতেই যুক্ত হওয়া বা একমুখী আসক্তির নামই—যোগ।

পরমপূজ্যপাদ শ্রীশ্রীবড়দা কর্তৃক ব্যাখ্যা :

ক্ষিতীশদা—একের প্রতি আসক্তি বা যুক্ত হওয়ার ভেতর দিয়ে আমার নিয়ন্ত্রণ হয়।

শ্রীশ্রীবড়দা—নিয়ন্ত্রণ কথা তো নেই।

ক্ষিতীশদা—যে কোন বিষয় একমুখী হ’লেই কি যোগ হয়? স্বামীমুখী ভাবনা হ’লেই তো যোগ?

শ্রীশ্রীবড়দা—ঐ ভাবনাটাই তো। ‘কোন কিছু’ বলতে কি বোঝা যায়?

ক্ষিতীশদা—’কোন কিছু’ মানে ইষ্ট বা আদর্শ। আদর্শে যুক্ত কিনা তা নিয়ে একটা প্রশ্ন হতে পারে।

শ্রীশ্রীবড়দা—যুক্ত হওয়ার শুধু কথা নয়তো, একমুখী হওয়ার কথাও আছে।

পরমেশ্বর—একটা স্কুলের সাথে যুক্ত হলাম, খাওয়া, দাওয়া, পড়াশুনা এই সবকটার সঙ্গে যুক্ত হবার দরুন যা’ যা’ করবার বাবা মার কথা মত করতে থাকলাম। এটা একমুখী আসক্তি না বহুমুখী আসক্তি?

শ্রীশ্রীবড়দা—স্কুলের সঙ্গে সেইরকম একমুখী আসক্তি। বাপ মার সঙ্গে একমুখী আসক্তি। যেমন ছেলে বাপ মাকে খুশী করবার জন্য সব কিছুই করে। স্কুলে যায়। যেভাবে পড়লে মা খুশী হয় তাই করে। তুলসীদাসের আসক্তি। যতদিন ছিল সেইমতই ছিল। আবার স্ত্রীর কথা শুনে ভগবানকে ভালবাসল, তখন তেমনই হল।

হরিপদদা—একটা সূঁচ magnet এর দ্বারা আসক্ত হ’ল, তাতে কি যুক্ত হ’ল?

শ্ৰীশ্ৰীবড়দা—কোন কিছুতে যুক্ত হওয়া মানে কি? সব আসক্তি যখন concentrated হয়, তখনই একমুখী আসক্তি। আমাদের দীক্ষা নিলেই কি হ’ল? একমুখী আসক্তি কি হয়েছে? আমরা সকলে দীক্ষা নিয়েছি কিন্তু যোগ কি হয়েছে? সত্যানুসরণ পাঠ করছি এবং যুক্ত হচ্ছি। এইভাবে যুক্ত হবার চেষ্টা করছি। চৈতন্যের দ্বারা যুক্ত হ’লে বিল্বমঙ্গলের মতো হয়। বিরাট চৈতন্যের দ্বারা আমরা যুক্ত হয়েছি। কিন্তু মহামায়ার দ্বারা আচ্ছন্ন আছি। বিল্বমঙ্গল, হরিদাস—ভালবাসায়, প্রেমে যুক্ত হয়েছিল । আমরা ভালবাসতেই জানি না। আত্মকেন্দ্রিকতা আছে তো, তাই। ইষ্টমাৰ্গ তো আলাদা। এই শরীর, স্বাস্থ্য, বীর্য্য, বল, প্রবৃত্তি, ইন্দ্রিয় সব কিছু নিয়ে প্রবৃত্তি মার্গেও আনন্দ আছে, ইষ্টমার্গেও আনন্দ আছে। যে ইষ্টমার্গে গেল তার আনন্দই আলাদা। সেটাই আসল আনন্দ।

[‘যামিনীকান্ত রায়চৌধুরীর দিনলিপি/তাং-৩/১০/৭১ ইং]

[প্রসঙ্গঃ সত্যানুসরণ পৃষ্ঠা ৩১৯]