বিশ্বাসের … নেই।-ব্যাখ্যা

সত্যানুসরণ-এ থাকা শ্রীশ্রীঠাকুরের বাণীটি হলো:

বিশ্বাসের মত আর সিদ্ধি নেই।

পরমপূজ্যপাদ শ্রীশ্রীবড়দা কর্তৃক ব্যাখ্যা :

তনুদা (নিখিল ঘটক)—অভিভূত বা আহত যদি না হই, তবে আমাদের সংশয় আসে না। ঠাকুর আমার প্রভু। তিনি দীন-দুনিয়ার মালিক। আমার জীবনবৃদ্ধি—এমনতর ভাব যদি আমার ভেতর থাকে, তবে অবাধ হ’য়ে সকলকে আপন ক’রে চলতে পারি।

শ্রীশ্রীবড়দা—তাঁকে প্রভু বললে কেন? দীন-দুনিয়ার মালিকই বা বললে কি জন্য?

তনুদা—যখন দীক্ষা নিলাম…

শ্রীশ্রীবড়দা—তাই বা নিলাম কেন?

তনুদা—আমার বৃত্তি-প্রবৃত্তি …

শ্রীশ্রীবড়দা—সে তো সবার মধ্যে আছে।

তনুদা—আমাদের জীবনে চলার জন্য আদর্শ চাই-ই।

শ্রীশ্রীবড়দা—সহজভাবে আলোচনা কর। দীন-দুনিয়ার মালিক কে—তা তাকে দেখে চট্‌ করে বুঝিয়ে দিতে পারিস?

তনুদা—আমার বিশ্বাস যদি থাকে…

শ্রীশ্রীবড়দা—বিশ্বাসটা কি? যেমন বিশ্বাস করলাম, গুরুকিংকরের কাছে যদি গান শিখি, তবে গানে সিদ্ধ হব। ওনার কাছে অনেকে শিখেছে। গায়ক হবার ইচ্ছে থাকলে ওস্তাদের উপরে বিশ্বাস থাকা চাই। যেমন একলব্য।

গুরুকিংকরদা—গুরুর প্রতি এত বিশ্বাস যে, গুরুর মূর্তি তৈরি করে সিদ্ধি করায়ত্ত করে ফেলল।

শ্রীশ্রীবড়দা—আমাদের কাছে মূর্ত্তি, কিন্তু একলব্যের কাছে জীবন্ত। ইষ্টের উপর বিশ্বাস করলে সর্ব বিষয়ে সর্বার্থ-সিদ্ধ হওয়া যায়।

[‘যামিনীকান্ত রায়চৌধুরীর দিনলিপি/তাং-২৬/৭/৭৫ ইং]

[প্রসঙ্গঃ সত্যানুসরণ পৃষ্ঠা ২৪৩]