বিশ্বাস না এলে … না! – ব্যাখ্যা

সত্যানুসরণ-এ থাকা শ্রীশ্রীঠাকুরের বাণীটি হলো:

বিশ্বাস না এলে নিষ্ঠা আসে না, আর, নিষ্ঠা ছাড়া ভক্তি থাকতে পারে না!

পরমপূজ্যপাদ শ্রীশ্রীবড়দা কর্তৃক ব্যাখ্যা :

আলোচনা হ’চ্ছে—অনেকে এখানে আসে, থাকে, ভাল লাগে খুব, নাম-টাম বেশ কিছু দিন ক’রে চলে —শেষে ঢিমেতেতালা মারে। শুনলে মন খারাপ লাগে।

শ্রীশ্রীবড়দা—বিশ্বাসের খাঁকতির জন্য এমনতর হয়। নিষ্ঠা Practice না করলে হয় না। আমার খেয়াল মত কোন দিন সকালে কোনদিন দুপুরে করি, তাতে হয় না। ঠাকুরের ছড়া আছে—

“যেথায় থাকিস্‌ হ’সনা বেহুঁস্‌
করতে সন্ধ্যা প্রার্থনা
হ’বিই তা’তে কর্ম্মনিপুণ
শক্তি পাবে বর্দ্ধনা।”

তার মানে নিষ্ঠা Practice ক’রতে-ক’রতে ভক্তি হয়। অবসাদ আসে না। অবসাদ এলেও তা’তে কিছু ক’রতে পারে না। ধর, রাত ৩/৪টায় উঠে Practice ক’রে যাচ্ছ। শেষে একদিন তুমি ইচ্ছা করলে একটু দেরী ক’রে করবে। কিন্তু তোমার অভ্যাস একদম ঠেলে তোমাকে তুলে দেবে। এভাবে সত্তাসম্বর্দ্ধনী হয়। তোমার ঢিলেমি থাকলেও তোমাকে ঠেলে তুলে দিচ্ছে। জপটাও ঐভাবে Practice ক’রে নিতে হয়। খেয়ালমাফিক ক’রলে শেষে বললে এত বছর করলাম। কিছু হলো না। ঠাকুরের কাছে লক্ষ লক্ষ জনম বসে থাকলে শেষে কিছুই পেলে না। কারণ, ঠাকুর যা’ বলেন তা করলে না, তাঁর ইচ্ছামত চললে না।

[‘যামিনীকান্ত রায়চৌধুরীর দিনলিপি/তাং-১২/১২/৭২ ইং]

[প্রসঙ্গঃ সত্যানুসরণ পৃষ্ঠা ২২৩ – ২২৪]