যাঁকে তুমি চালকরূপে … গড়াবে। – ব্যাখ্যা

সত্যানুসরণ-এ থাকা শ্রীশ্রীঠাকুরের বাণীটি হলো:

যাঁকে তুমি চালকরূপে মনোনীত ক’রে নিয়েছ, তাঁর কাছে তোমার হৃদয়ের কোনও কথা গোপন রেখো না। গোপন ক’রলে তাঁকে অবিশ্বাস করা হবে; আর, অবিশ্বাসেই অধঃপতন। চালক অন্তর্য্যামী, যদি ঠিক-ঠিক বিশ্বাস হয়, তবে তুমি কুকাৰ্য্য ক’রতেই পারবে না। আর, যদি ক’রেই ফেল তবে নিশ্চয়ই স্বীকার ক’রবে। আর, গোপন ক’রতে ইচ্ছা হ’লেই জেনো, তোমার হৃদয়ে দুৰ্ব্বলতা এসেছে, এবং অবিশ্বাস তোমাকে আক্রমণ ক’রেছে, —সাবধান হও, নতুবা অনেক দূর গড়াবে।

পরমপূজ্যপাদ শ্রীশ্রীবড়দা কর্তৃক ব্যাখ্যা :

বাণীটি স্নেহলতা-মা আলোচনা করছেন।

তিনি বললেন—আমি যাঁকে চালক ব’লে বুঝেছি, স্থির করেছি, তিনিই আমার সব। তাঁকে আমি সব বলব, গোপন করব না। আর যদি গোপন করি, তাহলে অবিশ্বাস করা হবে । তাঁকে গোপন করে যদি নিজে-নিজে চলি তাহলে আমার অধঃপতন হবে। তিনি সবই জানছেন, তিনি অন্তর্যামী যদি বিশ্বাস করি, আমার দুঃখ-কষ্ট ব্যথা-বেদনা সব কিছু বুঝে নেবেন, তাহলে আমি কোন খারাপ কাজ করতেই পারব না।

শ্রীশ্রীপিতৃদেব—কেন, করতে পারব না কেন?

—তিনি অন্তর্যামী আমার সব কাজ দেখছেন।

শ্রীশ্রীপিতৃদেব—হ্যাঁ, আমি যদি অন্যায় করি, তো তাঁকে জানাব যে, আমি এটা করে ফেলেছি। তা না করে যদি গোপন করি, তিনি তো অন্তর্যামী—সবই জানছেন—তাহলে আমার মধ্যে দুর্বলতা আসবে। কারণ, আমি তো গোপন করে চলি। তাই আমাকে সাবধান হতে বলছেন।

[পিতৃদেবের চরণপ্রান্তে/তাং-১২/৯/৭৯ ইং]

[প্রসঙ্গঃ সত্যানুসরণ পৃষ্ঠা ১৪৭]