যিনি কাতরভাবে … হও ! – ব্যাখ্যা

সত্যানুসরণ-এ থাকা শ্রীশ্রীঠাকুরের বাণীটি হলো:

যিনি কাতরভাবে তোমার দান গ্রহণ করেন, গুরুরূপে তিনি তোমার হৃদয়ে দয়াভাবের উদ্বোধন করেন ; অতএব কৃতজ্ঞ হও !

পরমপূজ্যপাদ শ্রীশ্রীবড়দা কর্তৃক ব্যাখ্যা :

শ্রীশ্রীপিতৃদেব জয়ন্তীকে আলোচনা করার আদেশ দিলেন।

জয়ন্তী—আমি যাকে দান করছি, তিনি দান গ্রহণ করছেন। ঠাকুর বলছেন, তিনিও তোমার গুরু।

শ্রীশ্রীপিতৃদেব—কেন, গুরু কেন?

—সে আমার মধ্যে দয়াভাব জাগ্রত করছে। দয়াভাবের উদ্বোধন করছে।

—ঠিক আছে না? ঠিকই তো বলেছে জয়ন্তী!

হরিপদদা—আজ্ঞে, ঠিকই আছে।

অতঃপর শ্রীশ্রীপিতৃদেব বললেন—যাচ্ঞাকারী এমন কাতরভাবে চায়!—মা, দুটো পয়সা দে-বে-ন-! মা, দুটো পয়সা দে-বে- ন-!

—শুনেই মন গলে যায়। অন্তরে দয়ার উদ্রেক করে। মনে হয় কিছু দিই। পকেটে পয়সা না থাকলে কষ্ট হয়। নিজেরই খারাপ লাগে। যেহেতু আমার দান গ্রহণ করে আমার হৃদয়ে দয়াভাব জাগিয়ে তুলছেন সেজন্য আমি তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞ এবং তিনি আমার গুরু। যিনি কোনও বিষয়ে শিক্ষা দান করেন তিনি গুরু।

অনেকে তাচ্ছিল্য ক’রে অবহেলা ভরে দান করে। সেক্ষেত্রে কিন্তু হৃদয়ে দয়াভাবের উদ্বোধন হয় না। অমনভাবে কখনও দান করতে নেই। বিনীতভাবে দান করতে হয়।

[ইষ্ট-প্রসঙ্গে/তারিখ-১৪/৮/৭৮ইং]

[প্রসঙ্গঃ সত্যানুসরণ পৃষ্ঠা১৬৯]