বলা ও অনুভূতি বিষয়ে সত্যানুসরণ

বলা ও অনুভূতি নিয়ে শ্রীশ্রীঠাকুর তাঁর শ্রীহস্তলিখিত সত্যানুসরণের পৃষ্ঠা নং ২৬, ২৭ এ বলেছেন…

স্পষ্টবাদী হও, কিন্তু মিষ্টভাষী হও।

[উপরের “স্পষ্টবাদী..হও” বাণীটির ব্যাখ্যা]

 ব’লতে বিবেচনা কর, কিন্তু ব’লে বিমুখ হ’য়ো না।

[উপরের “ব’লতে বিবেচনা…না বাণীটির ব্যাখ্যা]

যদি ভুল ব’লে থাক, সাবধান হও! ভুল ক’রো না।

[উপরের “যদি ভুল…ক’রো না” বাণীটির ব্যাখ্যা]

সত্য বল, কিন্তু সংহার এনো না।

[উপরের “সত্য…না” বাণীটির ব্যাখ্যা]

সৎ কথা বলা ভাল, কিন্তু ভাবা, অনুভব করা আরোও ভাল।

[উপরের “সৎ কথা…ভাল” বাণীটির ব্যাখ্যা]

অসৎ কথা বলার চেয়ে সৎ কথা বলা ভাল নিশ্চয়, কিন্তু বলার সঙ্গে কাজ করা ও অনুভব না থাকলে কী হ’লো—বেহালা, বীণা যেমন বাদকানুগ্রহে বাজে ভাল, কিন্তু তারা নিজে কিছু অনুভব ক’রতে পারে না।

[উপরের “অসৎ কথা… না” বাণীটির ব্যাখ্যা]

যে অনুভূতির খুব গল্প করে অথচ তার লক্ষণ প্রকাশ হয় না, তার গল্পগুলি কল্পনামাত্র বা আড়ম্বর।

[উপরের “যে অনুভূতির…আড়ম্বর” বাণীটির ব্যাখ্যা]

যত ডুববে তত বেমালুম হবে।

[উপরের “যত..হবে” বাণীটির ব্যাখ্যা]

যেমন ডালিম পাকলেই ফেটে যায়, তোমার অন্তরে সৎভাব পাকলেই আপনি ফেটে যাবে— তোমার মুখে তা’ প্রকাশ করতে হবে না।

[উপরের “যেমন ডালিম…না” বাণীটির ব্যাখ্যা]

Leave a Comment